সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

মাছের মাথা দিয়ে কচুর মুখী ঘন্ট

কচুর মুখী খুব সহজে অল্প সময়ে ঘন্ট করা যায়। কচুর মুখী ঘন্ট যে কোন বড় মাছে মাথা ও লেজ দিয়ে রান্না করা যায়। আবার মাছের মাথা ছাড়াও রান্না করা যায়। কচুর মুখী ঘন্ট সম্পূর্ন অন্য রকম স্বাদের মজাদার একটা খাবার। উপকরনঃ কচুর মুখী আধা কেজি, বড় মাছে মাথা ১টি, পেয়াজ কুচি আধা কাপ, রসুন কুচি ১ টি, কাঁচা মরিচের ফালি ১০ টি, তেজপাতা ২ টি, ভাজা জিরার গুড়া ২ চা চামচ, লবন ও সয়াবিনের তেল পরিমান মত। প্রনালীঃ পাত্রে পরিমান মত পানি ও কচুর মুখী দিয়ে সিদ্ধ করে নিন। সিদ্ধ হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। তারপর খোসা ছাড়িয়ে কচু ভর্তা মত করে ভাল করে পেস্ট করুন। এবার চুলায় কড়াই দিয়ে আঁচ দিতে থাকুন। কড়াইয়ে পরিমান মত তেল দিয়ে হলুদ ও লবণ মাখিয়ে মাছের মাথা ভেজে ঝুরি করে নিন। ঝুরি করা মাছে মাথার মধ্যে কাঁচা মরিচ, পেয়াজ কুচি, রসুন কুচি ও তেজপাতা দিয়ে হালকা ভেজে পেস্ট করা কচুর মুখী ঢেলে নাড়তে থাকুন। ২ মিনিট পর পেস্ট করা কচুর মুখী, সামান্য পানি, হলুদের গুড়া ও পরিমান মত লবণ দিয়ে নেড়ে ঢেকে চুলার আচ সামান্য কমিয়ে দিন। ২-৩ মিনিট পর ঢাকনা উঠিয়ে নাড়তে থাকুন। নাড়তে নাড়তে যখন কচুর মুখী কড়াইয়ের তলায় লেগে যাবে তখন ভাজা জিরার গুড়া দিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন। মজাদার কচুর মুখী ঘন্ট ভাত বা সকালের নাস্তায় রুটি ও পরোটা দিয়ে পরিবেশন করুন।
এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

বাংলা-রেসিপি, দেশিরান্না, ঘন্ট, কচুর-মুখী, মাছের-মাথা