সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

শুলা কচুর চচ্চরি

শুলা কচু কে অনেকে মৌলভীকচুও বলে। লম্বা লম্বা মোটা ও ভিতরে কচুটা শুলার মত মনে হয় বলে তাকে শুলা কচু বলে। এই কচুর ভর্তা, ভাজি, নিরামিষ ও যে কোন মাছ দিয়ে রান্না করে খাওয়া যায়। শুলা কচু একটি পুষ্টিকর ও সুস্বাদু খাবার। পুকুরের মায়া মাছের সাথে শুলা কচুর চচ্চরি অন্যরকম একটা স্বাদের খাবার। উপকরনঃ বড় শুলা কচু অর্ধেক, মায়া মাছ ১ পোয়া, জিরা বাটা আধা চা চামচ, আদা বাটা আধা চা চামচ, পেয়াজ বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, কাঁচা মরিচ ফালি ১০-১২ টি, পাঁচ ফড়ং বাটা আধা চা চামচ, হলুদের গুড়া ১ চা চামচ, ভাজা জিরার গুড়া ১ চা চামচ, লবণ ও সরিষার তেল পরিমান মত। প্রনালীঃ প্রথমে শুলা কচু কুচি করে কেটে ভাল করে ধুয়ে নিন। মায়া মাছগুলো পরিষ্কার করে কেটে ধেয়ে নিন। তারপর শুলা কচু , মাছ ও ভাজা জিরার গুড়া বাদে উপরের সব উপকরন দিয়ে মাখিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। ২ মিনিট পর চুলার আঁচ বাড়িয়ে পরিমান মত পানি দিয়ে আঁচ দিতে থাকুন। শুলা কচু যখন সিদ্ধ হয়ে মাছে আর ঝলে মাখা মাখা হয়ে যাবে তখন চুলার আঁচ সামান্য কমিয়ে দিন। ঝোল একেবারে শুকিয়ে গেলে ভাজা জিরার গুড়া ছিটিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন। এবার দুপুরে বা রাতের খাবারে টেবলে লেবু দিয়ে পরিবেশন করুন।
এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

শুলা-কচু, মৌলভীকচু, মায়া-মাছ, বাংলা-রেসিপি, দেশিরান্না, রান্নাবান্না