সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

Eggplant-healthy.jpg

গুনাগুন বেগুনের যত গুন

বেগুন কম ক্যালরি যুক্ত একটি সবজি। এক কাপ বেগুনে রয়েছে মাত্র ৩৫ ক্যালরি। এতে কোন ফ্যাট নেই এবং উচ্চ মাত্রার আঁশ থাকার কারনে এটি পেট ভরার অনুভূতি দেয়। তাই কম খেয়ে থাকা যায় যা ওজন কমাতে সাহায্য করে।

বেগুন সবজিটির নামের যে অর্থ দাড়ায় সেটা হলো কোন গুন নেই যার। এই কথাটি আমাদের মুখে মুখে প্রচলিত হয়ে আসার ফলে আমাদের অনেকরই ধারনা যে বেগুনের আসলেই কোন গুন নেই অর্থাৎ এটি একটি অপুষ্টিকর খাবার। তাই সেই ধারনা থেকে বের হয়ে আসার জন্য এখানে বেগুনের কিছু পুষ্টি ও স্বাস্থ্য উপকারিতার কথা উল্লেখ করছি।

  • পুষ্টি উপাদানের উপস্থিতি: বেগুনে থাকা আয়রন, ক্যালসিয়াম, এবং খনিজ পদার্থ দেহের জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহ করে।বেগুনের দ্বারা তৈরি করা বেক, গ্রীল, ভাজা এবং সেদ্ধ খাবার গুলো হয় মজাদার।
  • মস্তিস্কের জন্য উপকারী: বেগুনে থাকা বিভিন্ন অত্যাবশ্যকীয় ফাইটো নিউট্রিয়েন্ট রক্ত চলাচলকে উন্নত করে এবং মস্তিস্ককে পুষ্ট করে। এটি কোষ ঝিল্লিকে যেকোনো প্রকার ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে এবং মস্তিস্কের বার্তা এক অংশ থেকে অন্য অংশে প্রেরণের মাধ্যমে মস্তিস্কের কার্যকারিতা ভালো রাখে। তবে এর বেশীরভাগ পুষ্টি থাকে খোসার মাঝে তাই খোসা না ফেলেই খেতে হবে।
  • কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধে: খাদ্য আঁশ থাকার ফলে পরিপাক তন্ত্রকে রক্ষা করে বেগুন। নিয়মিত বেগুন খেলে তা কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।
  • ওজন কমাতে: বেগুন কম ক্যালরি যুক্ত একটি সবজি। এক কাপ বেগুনে রয়েছে মাত্র ৩৫ ক্যালরি। এতে কোন ফ্যাট নেই এবং উচ্চ মাত্রার আঁশ থাকার কারনে এটি পেট ভরার অনুভূতি দেয়। তাই কম খেয়ে থাকা যায় যা ওজন কমাতে সাহায্য করে।
  • ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে: আধুনিক গবেষণায় পাওয়া যায় যে বেগুনে উচ্চ মাত্রার খাদ্য আঁশ এবং ধীর গতিতে শোষণ হওয়া শর্করা থাকে যা রক্তের শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে এবং গ্লুকোজ শোষণকে নিয়ন্ত্রণ করে। তাই যাদের টাইপ ২ ডায়াবেটিস আছে তাদের জন্য বেগুন খুবই ভালো।
  • হৃদস্বাস্থ্যের সুরক্ষায়: বেগুন হৃদপিন্ডের সুরক্ষাও করে। গবেষণায় দেখা যায় যে এটি খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। কিন্তু এই উপকারিতা পেতে হলে বেগুন অবশ্যই সঠিক উপায়ে রান্না করতে হবে। তেলে ভাজলে অনেক তেল বেগুন শুষে নেয়। তাই না ভেজে একে যদি বেক করে খাওয়া যায় তাহলে এর পুষ্টিগুণ পাওয়ার সাথে সাথে মজাদার স্বাদও পাওয়া সম্ভব।
  • মানসিক চাপ কমাতে: এছাড়া এতে উচ্চ মাত্রার বায়োফ্লেভনয়েড থাকে যা উচ্চ রক্তচাপ ও মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে।
  • রক্ত জমাট বাধা প্রতিরোধে: বেগুনে থাকা ভিটামিন কে ও বায়োফ্লেভনয়েড কৌশিক নালীকে শক্তিশালী করে ফলে এটা নিয়মিত খেলে রক্তের জমাট বাধা প্রতিরোধ করতে পারে। 
  • অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল গুনাগুন: বেগুনে রয়েছে বেশ ভালো পরিমানে ভিটামিন সি যা একে অ্যান্টি ভাইরাল ও অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল গুনাগুন দিয়ে থাকে।
  • ধূমপান বর্জনে: বেগুনে সামান্য কিছু মাত্রার নিকোটিন রয়েছে ফলে নিয়মিত বেগুন খেলে যারা ধূমপান ছাড়তে চান তাদের জন্য এটা সহায়ক হয়।

 -
লেখক: জনস্বাস্থ্য পুষ্টিবিদ; এক্স ডায়েটিশিয়ান,পারসোনা হেল্‌থ; খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান (স্নাতকোত্তর) (এমপিএইচ)


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

vitamin, smoking, stress, mental, brain, diabetics, healthy, eggplant