সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

khejur.jpg

পুষ্টিগুণ শুধু রমজান মাসে নয়, খেজুর খান সারা বছর

আমরা শুধু রমজান মাসেই খেজুরের গুরুত্ব দিয়ে থাকি। কিন্তু আমাদের উচিত এই মুখরোচক ফলটিকে সারা বছর গুরুত্ব দেওয়া।

মুখের স্বাদের পাশাপাশি খেজুরের রয়েছে প্রচুর পুষ্টি। খেজুর দেখতে যেমন সুন্দর তার ভেতরের গুনাবলীও অতুলনীয়। এবার দেখা যাক খেজুরের গুনাবলী কি কি:

  • খেজুরে ক্যালরির পরিমান রয়েছে অনেক বেশি। তাই সারাদিন রোজা রাখার পর মাত্র  ২-৩ টা খেজুর  আপনার শরীরে এনার্জি এনে দিবে খুব তাড়াতাড়ি।

  • খেজুরে রয়েছে প্রচুর পরিমানে আয়রন।

  • প্রতিদিন ১ টি খেজুর আপানর শরীরের কোষ্ঠকাঠিন্যে দূর করতে সহায়তা করবে।

  • খেজুরে প্রচুর পরিমান মিনারেল ও আয়রন রয়েছে। যা শরীরে প্রয়োজনীয় চাহিদা, রক্তস্বল্পতা ও ক্ষয়রোধ করতে সাহায্য করে।

  • খেজুর প্যাথলজিক্যাল অর্গানিজমের উৎপাদন বৃদ্ধি করে।

  • খেজুর ডায়াবেটিস রোগীদের ইন্স্যুলেন হিসেবে কাজ করে।

  • খেজুর মুখের রুচি,  হজম শক্তি বৃদ্ধি ও পাকস্থলী পরিষ্কার রাখে।

  • প্রচুর পরিমান পটাসিয়াম ও সোডিয়াম রয়েছে যা  কলেস্টোরল কমাতে সহয়তা করে থাকে।

  • পেটের যে কোন সমস্যা বা বদ হজম, পেট ফাপা বা পাতলা পায়খানা জনিত যে কোনো সমস্যায় খেজুর স্যালাইন ন্যায় কাজ করে।

  • নিয়মিত খেজুর খাওয়ার অভ্যাসে আপনার হৃদপিন্ডের সমস্যা দূর করবে খুব নিমেষেই।

এত গুন যে ফলের মধ্যে আছে সে ফলটি আপনি প্রতিদিন কেন খাবেন না। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে খেজুরের গুরুত্ব অপরিসীম। তাই রোজার মাস ছাড়াও আমাদের প্রতিদিন অন্তত ২/১ টি খেজুর খাওয়ার অভ্যাস তৈরী করা উচিত।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

iftar, healthy, iron, minerals, vitamin, Date